ব্লগিং হচ্ছে একটি লেখা লেখি করার পেশা, আপনার যদি লেখা লেখি করতে ভালো লাগে তাহলে আপনি ব্লগিং ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করতে পারেন । কিন্তু ৯০% মানুষ এই ব্লগিং ইন্ডাস্ট্রিতে ফেইলার হয়ে যায় কিছু কমন মিস্টেক করার কারনে আজকে ঠিক সেরকম ৮ টি মিসটেক নিয়ে আমি আলোচনা করবো। যে মিস্টেক গুলো এভয়েড করলে আপনি আপনার ব্লগিং ক্যারিয়ারে আপনি একটা ভালো ডেভেলপমেন্ট দেখতে পাবেন । তাহলে চলুন মূল আলোচনায় চলে যাই।

ব্লগিং শুরু করার প্রথম থেকেই ইনকাম করার চিন্তা করা

দেখুন আমরা যদি একটা ভালো জব নিতে যাই আমাদের কে ২০-২৫ বছর পর্যন্ত পড়াশুনা করতে হয় তারপর আমরা একটা ভালো জব এর আশা করতে পারি ঠিক ব্লগিং টা ও সেম । আপনি প্রথম দিন থেকেই আপনি রেভিনিউ জেনারেট করতে পারবেন না । আপনাকে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত আপনার নির্দিষ্ট টপিকের উপর আর্টিকেল পাবলিশ করে যেতে হবে, তারপর একটা সময় অবশ্যই আপনার ব্লগ থেকে রেভিনিউ জেনারেট হবে। আপনি যত ওয়েবসাইট ভিজিট করেন একটা বিষয় লক্ষ করে দেখবেন আশে পাশে গুগল এডসেন্স সহ বিভিন্ন কোম্পানীর এডস ডিসপ্লে হয় যেখান থেকে মূলত ওই ওয়েবসাইট ওউনার দের রেভিনিউ জেনারেট হচ্ছে । তারা সেগুলো একদিনে ডেভেলপ করেনি প্রতিনিয়ত তারা বিভিন্ন ধরনের কন্টেন্ট পাবলিশ করতে করতে তাদের ওয়েবসাইটে একটা সময় ট্রাফিক আসতে শুরু করেছে , এবং তারা রেভিনিউ জেনারেট করতে শুরু করেছে । সো আপনার ব্লগে ও
আপনি কন্টিনিউ আরটিক্যাল পাবলিশ করে যাবেন, এবং সাথে আপনাকে ধৈর্য রাখতে হবে ।

অতিরিক্ত এফিলিয়েট প্রোগ্রামে জয়েন করা

অতিরিক্ত এফিলিয়েট প্রোগ্রামে জয়েন করবেন না । আপনার ব্লগের যে বিষয় সে বিষয় রিলেটেড ভালো ভালো দুই একটা মার্কেট প্লেসে জয়েন করুন। আপনি আপনার এফিলিয়েট প্রোগ্রাম দিয়ে একাধিক কোম্পানিতে জয়েন করতে পারবেন তাতে কোনো সমস্যা নেই । সবচেয়ে বড় বড় মার্কেট প্লেস গুলো হচ্ছে – আলী এক্সপ্রেস, আমাজান, থিম ফরেস্ট এগুলো, এছাড়া ও আরো অনেক বড় বড় কোম্পানী আছে যারা এফিলিয়েট পার্টনার নিয়ে থাকে। কিন্তু আপনার ব্লগ রিলেটেড সরবোচ্চ দুই টা বা তিন টা এফিলিয়েট প্রোগ্রামে আপনি জয়েন করবেন। অতিরিক্ত এফিলিয়েট প্রোগ্রামে জয়েন না করে বরং ভালো কোয়ালিটির দুই , একটা মারকেটপ্লেসে জয়েন করলেই সেগুলো থেকেই ভালো মানের রেভিনিউ জেনারেট করতে পারবেন এবং বেস্ট রেজাল্ট দেখতে পাবেন ।

কন্টেন্ট ছাড়াই এফিলিয়েট প্রোগ্রামের জন্য এপ্লাই করা

অনেকে কোনো কন্টেন্ট ছাড়াই এফিলিয়েট প্রোগ্রামের জন্য এপ্লাই করে , যার ফলে বেশির ভাগ ক্ষেত্রে তারা রিজেক্টেড হয়ে যায় । কোনো কোম্পানি এফিলিয়েট পার্টনার নেয়ার পূর্বে দেখতে চায় আপনার ওয়েবসাইটে আপনি কি ধরনের কন্টেন্ট বা আরটিক্যাল পাব্লিশ করছেন। অথবা আপনার ইউটিউব চ্যানেল থাকলে আপনি কোন বিষয়ের উপর ভিডিও পাবলিশ করছেন । সেগুলো কে রিভিউ করার পর ই তারা একাউন্ট এপ্রুভ করে দেয় । তাই এফিলিয়েট প্রোগ্রামে জয়েন করার পূর্বে আপনার ওয়েবসাইটে অবশ্যই আপনি আরটিক্যাল পাবলিশ করে নিবেন। নির্দিষ্ট কোনো সংখ্যা নেই আপনি কত গুলো আরটিক্যাল পাবলিশ করার পর আপনি এপ্লাই করবেন। আবারো বলছি ব্লগিং হচ্ছে একটা লেখা লেখির প্রফেশন । আপনাকে কন্টিনিউয়াস্লি লিখতে হবে , যদি এফিলিয়েট প্রোগ্রাম এপ্রুভ করানোই আপনার আসল উদ্দেশ্য হয়ে থাকে , গুগল এডসেন্স এপ্রুভ করানোই আপনার আসল উদ্দেশ্য হয়ে থাকে তাহলে ব্লগিং এ আপনি খুব ভালো একটা কিছু করতে পারবেন না । এই কোম্পানী গুল বসে আছে আপনাকে গুগল এডসেন্স এপ্প্রুভাল দেয়ার জন্য , এফিলিয়েট প্রোগ্রাম পার্টনারশিপ দেয়ার জন্য আপনাকে শুধু কন্টিনিউয়াসলি ভালো কোয়ালাটির কন্টেন্ট আপনাকে পাবলিশ করতে হবে। সো অবশ্যই এটা মাথায় রাখবেন , আপনার ইউটিউব চ্যানেল হোক বা আপনার ওয়েবসাইট হোক আগে আপনি কন্টেন্ট পাবলিশ করে নিবেন। তারপর ওইগুলো সবসময় এভেইলেবল আছে এপ্লাই করার জন্য । এতে করে আপনার এপ্লিক্যাশন এক চান্সেই এপ্রুভ হয়ে যাবে । সো এই মিসটেক টি অবশ্যই এভয়েড করবেন ডু নট এপ্লাই ফর এফিলিয়েট প্রোগ্রামস উইদাউট কন্টেন্ট ।

যেখানে সেখানে কপি পেস্ট করা

নতুন রা কমন একটা মিসটেক করে থাকে এফিলিয়েট প্রোগ্রামে সেটা হচ্ছে – এফিলিয়েট লিংক গুলো যেখানে সেখানে কপি পেস্ট করা এই ধরুন ভিডিওর ডেসক্রিপশনে এসে লিংক পেস্ট করে দেয়া , বিভিন্ন ওয়েবসাইটের কমেন্ট সেকশনে গিয়ে লিংক পেস্ট করে দেয়া । ফেসবুকে বিভিন্ন জায়গায় যেখানে সেখানে এফিলিয়েট প্রোগ্রামের লিংক পেস্ট করা , এগুলো কে আসলে এফিলিয়েট মার্কেটিং বলা হয় না। এগুলো কে বলা হয় স্প্যামিং । আর স্প্যাম করার কারনে অনেকের ই একাউন্ট সাসপেন্ড হয়ে যায় । তাই এই মিসটেক টা থেকে আপনি অবশ্যই বিরত থাইবেন। যেখানে সেখানে এফিলিয়েট প্রোগ্রামের লিংক কপি পেস্ট করবেন না। এভাবে আপনি কখনোই এফিলিয়েট ইন্ডাস্ট্রিতে ভালো
কিছু করতে পারবেন না। আপনি কন্টেন্ট লেখার মাধ্যমে সেখানে এফিলিয়েট লিংক দিন , ভিডিও তৈরি করার মাধ্যমে সে ভিডিওর নিচে এফিলিয়েট প্রোগ্রামের লিংক দিন । কিন্তু কারো ভিডিওর নিচে কমেন্ট সেকশনে গিয়ে বা ফেসবুক এর অন্য কারো পোস্ট এর কমেন্ট সেকশনে গিয়ে এফিলিয়েট প্রোগ্রামের লিংক গুলো পেস্ট করবেন না । এতে স্প্যামিং হবে এবং কোনো এক সময় সেই কোম্পানী আপনার একাউন্ট টা কে সাসপেন্ড
করে দিবে।

এফিলিয়েট প্রোগ্রামের লিংক নিয়ে ডিরেক্টলি প্রোমশন করা

এটা করা যাবে না আমাজান, আলী এক্সপ্রেস, থিম ফরেস্ট এগুলো অনেক বড় বড় কোম্পানী । এই কোম্পানীর প্রোডাক্ট লিংক আপনি ফেসবুকের মাধ্যমে ডিরেক্ট বুস্ট করে দিলেন , গুগল এডওয়ারডের মাধ্যমে বুস্ট করে দিলেন , এতে করে আপনার একাউন্ট টি সাসপেন্ড হয়ে যাবে। আপনার ওয়েবসাইট আপনি কন্টেন্ট লিখতে পারেন। এবং সেখানে আপনি এফিলিয়েট লিংক দিয়ে দিতে পারেন। এবং আপনার ওয়েবসাইটের লিংকে আপনি বুস্ট করতে পারেন তাতে কোনো সমস্যা নেই । কিন্তু ডিরেক্টলি আপনি যদি আমাজনের লিংক বা থিম ফরেস্টের লিংক ফেসবুকে বুস্ট করে দেন গুগল এডওয়ারডের মাধ্যমে যদি বুস্ট করে দেন আপনার একাউন্ট টি সাসপেন্ড হয়ে যাবে। এই কোম্পানী গুলো এটা এলাউ করে না ।
সো মার্কেট প্লেসের লিংক সরাসরি পেইড প্রোমশন করা থেকে বিরত থাকবেন।

ওয়েবসাইটের ভিজিটর দের প্রোপারলি এনালাইসিস না করা

আপনার ওয়েবসাইটে যখন ট্রাফিক আসতে শুরু করবে আপনি অবশ্যই আপনার ট্রাফিক বা ভিজিটর দের ডাটা এনালাইসিস করবেন। এই যেমন ভিজিটর দের বয়স কত ? কি পরিমান ছেলেরা ভিজিট করতেছে ? কি পরিমান মেয়েরা ভিজিট করতেছে ? কোন কোন দেশ থেকে ভিজিট করতেছে এগুলো আপনাকে এনালাইসিস করতে হবে । যাতে করে এই ইনফরমেশন গুলোর উপর বেজ করে আপনি পরবর্তী কন্টেন্ট গুলো রেডি করতে পারেন। ডাটা এনালাইসিস করার সবচেয়ে বেস্ট টুল হচ্ছে গুগল এনালাইটিক্স (google analytics) এটা গুগলের একটি ফ্রি এনালাইটিক্স টুল । আপনার ওয়েবসাইটের সাথে আপনার গুগল এনালাইটিক্স কে কানেক্ট করলেই আপনার ওয়েবসাইটে কি ধরনের ভিজিটর আসতেছে , তাদের বয়স কত, তারা কোন ধরনের ডিভাইস ব্যবহার করে স্মারটফোন ডেস্কটপ নাকি ল্যাপটপ , ছেলে ভিজিটর কত , মেয়ে ভিজিটর কত এই ধরনের বিভিন্ন ডাটা গুলো আপনি আপনার গুগল এনালাইটিক্স ড্যাশবোর্ডে দেখতে পারবেন। এবং এই ডাটা গুলো ভালো ভাবে মনোযোগ দিয়ে এনালাইসিস করলে আপনি পরবর্তীতে ডিসিশন ঠিক করতে পারবেন যে পরবর্তী কন্টেন্ট গুলো কোন বিষয়ের উপর দিলে ভালো হবে। চিন্তার কিছু নেই , আপনি যদি এই বিষয় গুলো এখন বুঝতে না পারেন, আপনার ওয়েব সাইটে যখন ট্রাফিক আসা শুরু করলে গুগল এনালাইটিক্স এর মাধ্যমে আপনি এনালাইসিস করবেন এবং ধীরে ধীরে আপনি বুঝতে পারবেন কিভাবে এই এনালাইটিক্স টুল টি কে কিভাবে ব্যবহার করতে হয় । তাই
আপনার ওয়েবসাইটের ট্রাফিক বা ভিজিটর দের কে আপনি ভালো ভাবে এনালাইস করবেন।

কন্টেন্টের মধ্যে অতিরিক্ত ব্যানার বা এডস ব্যবহার করা

অনেক ওয়েবসাইট আছে , আপনি ভিজিট করলে দেখবেন চারদিকে এডস আর এডস । একটা তে ক্লিক করলে আরেকটা ওপেন হয়ে যায় । এগুলো খুব ই বিরক্তিকর বিষয় । তাই এই ধরনের অতিরিক্ত ব্যানার বা এডস ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকবেন। কারন কেউ ই এডভারটাইস্মেন্ট লাইক করে না , আপনার কথা ই চিন্তা করুন আপনি এডভারটাইজমেন্ট দেখার জন্য কিন্তু কোনো কন্টেন্ট দেখেন না। এডভারটাইজমেন্ট আমরা কেউ ই লাইক করি না । কিন্তু এডভারটাইজমেন্ট দেখতে হয় কিন্তু সেটার একটা লিমিট থাকা উচিত । অতিরিক্ত হলে এটা কারোর ই ভাল লাগবে না । তাই আপনার কন্টেন্ট এর মধ্যে ও অতিরক্ত এডভারটাইজমেন্ট ব্যবহার করবেন না । এডসেন্সের রুলস অনুযায়ী একটি পেজে আপনি সরবচ্চচ তিন টি ব্যানার এডস প্লেস করতে পারবেন। তিন টির বেশি করা যাবে না এতে করে পলিসি ব্রেক হবে এডসেন্স ব্যান হওার চান্স থাকবে । আপনার ওয়েবসাইটের ট্রাফিক বা ভিজিটর রা আপনার কন্টেন্ট পড়ার জন্য আসবে । এডভারটাইজমেন্ট দেখার জন্য আসবে না। অতিরিক্ত প্রফিটের আসায় আপনার ওয়েবসাইটের আশায় আপানার ওয়েবসাইটের চারদিকে এডভারটাইজমেন্ট বসিয়ে দিলেন । এতে করে ভিজিটর রা বিরক্ত হয়ে আপনার সাইটে আর ভিজিট করতে চাইবে না।

ইউজার দের ফিডব্যাক থেকে না শেখা

আপনার ওয়েবসাইটে যখন ভিজিটর আসবে , আপনার কন্টেন্টের নিচে তখন বিভিন্ন ধরনের কমেন্ট পড়বে , একেকজন একেক ভাবে তাদের মন্তব্য দিবে । সেই মন্তব্য গুলো থেকে আপনাকে বিভিন্ন ধরনের বিষয় শিখে নিতে হবে । তারা কি বলছে খুব মনোযোগ দিয়ে বুঝতে হবে। নতুন কি শিখতে চাচ্ছে , নতুন কি জানতে চাচ্ছে এই বিষয় গুলো আপনাকে নোট করে রাখতে হবে এবং পরবর্তীতে সেগুলোর উপর ও কন্টেন্ট পাবলিশ করতে হবে । তাই আপনার ওয়েবসাইটে যে ট্রাফিক বা ভিজিটর আসবে তাদের ফিডব্যাক থেকে আপনি বিভিন্ন ধরনের বিষয় শেখার চেস্টা করবেন। এবং সেগুলোর উপর ডিপেন্ড করে আরো নতুন নতুন কন্টেন্ট পাবলিশ করবেন । এতে করে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর দের
একটা ট্রাস্ট বিল্ড হবে , একটা অথরিটি বিল্ড হবে ।

সো ডিয়ার রিডার এই ছিলো কমন কিছু মিসটেক যা প্রায় অনেকেই করে থাকে । আশা করছি এই মিসটেক গুলো আপনি এভয়েড করবেন।

By Nogor24